গজারিয়ায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের হামলায় আহত ৭, তিনজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক

মুন্সীগঞ্জের গজারিয়া উপজেলার ইমামপুর ইউনিয়নের হোগলাকান্দি গ্রামে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের হামলায় ৭জন আহত হয়েছে, আহতদের মধ্যে তিনজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। এ সময় দুটি বসতঘরে ভাঙচুর এবং লুটপাট চালানো হয়।
সরেজমিনে ঘটনাস্থলে গিয়ে প্রত্যক্ষদর্শীদের সাথে কথা বলে জানা যায়, দীর্ঘদিন ধরে ইমামপুর ইউনিয়নে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে লালু গ্রুপের সাথে শেখ ফরিদ গ্রুপের বিরোধ ছিল। পূর্বশত্রুতার জের ধরে আজ সকাল দশটার দিকে লালু ও তার গ্রুপের শতাধিক লোকজন আধুনিক অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে হামলা চালায় প্রতিপক্ষ শেখ ফরিদ গ্রুপের লোকজনদের উপরে। এ সময় শেখ ফরিদ ও তার ছোট ভাই রকিব শিকদারসহ আহত হয় ৭জন । আহরা হলেন, শেখ ফরিদ (৩৩), রকিব শিকদার (২০), ইকরাম(৩৫), রাজু(১৬), সাকিব(২৫), মিলন(১৮), জয়নব বেগম (৩০)।
স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে গজারিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠায়। তাদের মধ্যে তিনজনের ( শেখ ফরিদ, রকিব ও ইকরামের) অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাদের প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ঢাকা পাঠিয়ে দিয়েছে।
গজারিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা.মাহি আলম জানান, আহত তিনজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। তাদের মাথায় এবং শরীরের বিভিন্ন অংশে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

ভুক্তভোগী আবুল কালামের মেয়ে করুণা আক্তার জানান, তাদের বাড়িঘরে হামলা চালিয়ে সাড়ে চার ভরি স্বর্ণালংকার ও নগদ ৪৩ হাজার টাকা লুট করে নিয়ে গেছে সন্ত্রাসীরা।
বিষয়টি সম্পর্কে জানতে গজারিয়া থানার ওসি তদন্ত মোঃ মামুন আল রশিদের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে । এ ঘটনায় জড়িতদের গ্রেপ্তারে পুলিশের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে তবে এখনো পর্যন্ত কেউ থানায় লিখিত অভিযোগ দেয়নি।