দেশি ঘি-এর বিস্ময়কর ৫টি গুণ

বহুকাল ধরে রান্না এক জনপ্রিয় উপকরণ ঘি। খাঁটি দেশি ঘি পছন্দ করেন না এমন মানুষের দেখা মেলা ভার। তবে বিশেষজ্ঞরা দেশি পদ্ধতিতে উৎপাদিত ঘি স্বাস্থ্যকর নয় বলে মত দিয়েছেন। আবার বহু বিশেষজ্ঞের মতে, এতে কোনো সমস্যা নেই। কারণ দেশি ঘি-এর দারুণ সব গুণ রয়েছে। এখানে দেখে নিন এর ৫টি অসাধারণ গুণের কথা।

১. ত্বকের শুষ্কতা দূর করে বিস্ময়করভাবে। ত্বককে রাখে দারুণ ময়েশ্চারাইজারসমৃদ্ধ। চুলের যত্নেও ঘিয়ের তুলনা চলে না। সামান্য ঘি গরম করে চুলে দিয়ে দেখুন এর গুণ।

২. দেশি ঘিয়ে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন এ রয়েছে। চোখের জ্যোতি বৃদ্ধি করে ঘি। চোখের চাপ প্রশমিত করে। গ্লুকোমায় আক্রান্তরাও উপকার পেতে পারেন ঘি থেকে।

৩. হাড়ের সংযোগকে পরিপুষ্ট ও শক্তপোক্ত করে ঘি। সংযোগস্থল মসৃণ রাখতে যথেষ্ট পরিমাণ লুব্রিকেন্ট সরবরাহ করে দেশি ঘি।

৪. ঘিতে রয়েছে স্থিতিশীল স্যাটুরেটেড বন্ধন। রান্নার সময় ফেনার মাধ্যমে ক্ষতিকারক উপাদান ছড়ায় না ঘিয়ের মাধ্যমে। কাজেই স্বাস্থ্যকর রান্নায় ঘি দারুণ উপকরণ।

৫. পোড়াতে ঘি লাগালে দারুণ আরাম মেলে। আয়ুর্বেদ চিকিৎসায় বলা হয়, মস্তিষ্কের কর্মক্ষমতা বৃদ্ধিতে ঘি জাদুর মতো কাজ করে।

সূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া।