পদ্মার ভাঙন রোধে টেকসই প্রকল্প গ্রহণের জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর প্রতি মৃণাল কান্তি দাসের অনুরোধ

মুন্সীগঞ্জ-৩ আসনের সংসদ সদস্য বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মৃণাল কান্তি দাস এমপি গতকাল পদ্মা নদীর ভাঙন কবলিত মুন্সীগঞ্জ সদর উপজেলার বাংলাবাজার ও শিলই ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকা পরিদর্শন করেন এবং ক্ষতিগ্রস্তদের খোঁজ-খবর নেন। এ সময় তিনি পদ্মার ভাঙন রোধে স্থায়ী বাঁধ নির্মাণের জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুকন্যা জননেত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা’র প্রতি অনুরোধ জানান।

অ্যাডভোকেট মৃণাল কান্তি দাস বলেন, প্রমত্তা পদ্মার ভাঙনে মুন্সীগঞ্জের বিভিন্ন এলাকার মানুষ ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। সাধারণ মানুষ বিশেষত কৃষকরা তাদের ফসলি জমি হারাচ্ছে, পদ্মার ভয়াল গ্রাসে অনেকেই সর্বশান্ত হয়ে পড়ছে। এই জনপদ রক্ষায় পদ্মার ভাঙন রোধে প্রয়োজন স্থায়ী বাঁধ নির্মাণ।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের টেকসই উন্নয়ন নিশ্চিত করতে হলে নদী ভাঙন রোধ করতে হবে। আমি গণমানুষের আশা-আকাক্সক্ষার বিশ্বস্ত ঠিকানা, সফল রাষ্ট্রনায়ক, আমাদের অভিভাবক মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুকন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার নিকট আকুল আবেদন জানাচ্ছি- আপনি আমার মুন্সীগঞ্জের মানুষকে পদ্মার ভয়াল গ্রাস থেকে রক্ষা করুন। নদী ভাঙন রোধে স্থায়ী বাঁধ নির্মাণ করে এ এলাকার মানুষের আর্থ-সামাজিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সহায়তা করুন।

তিনি বলেন, একই সাথে পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের মাননীয় প্রতিমন্ত্রী, উপমন্ত্রীকে আহ্বান জানাবো মুন্সীগঞ্জের মানুষকে পদ্মা নদীর ভয়াবহ ভাঙন থেকে রক্ষায় টেকসই প্রকল্প গ্রহণ ও বাস্তবায়ন করুন। ত্রাণ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রীর প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি নদী ভাঙনে ক্ষতিগ্রস্তদের পুনর্বাসনে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ ও তা বাস্তবায়নের জন্য।

এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মুন্সীগঞ্জে জেলা পূজা উদযাপন কমিটির সভাপতি শ্রী সমর ঘোষ, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি আল মাহমুদ বাবু, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি অ্যাডভোকেট গোলাম মাওলা তপন, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি ইসমাইল সরকার, ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান সোহরাব পীর, ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য সালাহ উদ্দিন,, দ্বীন ইসলাম, কমর উদ্দিন কমল প্রমুখ।