গজারিয়ায় নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে মাইক্রোবাস উল্টে নিহত ৩॥ আহত ১১জন

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের মুন্সীগঞ্জ গজারিয়ার বাউশিয়া পাখির মোড়ে মাইক্রোবাস (ঢাকা মেট্রো অ-১৬২) নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে উল্টে ঘটনাস্থলেই ৩ জন নিহত হয়। এ সময় আহত হয়েছে ১১জন। এদের মধ্যে ৪জনের অবস্থা খুবই আশংকাজনক বলে জানিয়েছেন ফায়ার ম্যান মো: জাহিদুল ইসলাম। দুর্ঘটনার বিষয়টি নিশ্চিত করেছে গজারিয়া ফায়ার স্টেশন অফিসার রিফাত মল্লিক। নিহতদের মধ্যে বাদশা (২৫), কাফি (৩৪), ইমরান (২৫) পিতা ইনু মিয়া। আহত এবং নিহত সকলের বাড়ি গাইবান্ধায়। ঘটনাটি ঘটে বুধবার সকাল সাড়ে ৭টার সময়। দুর্ঘটনায় কবলিত মাইক্রোবাসটি কক্সবাজার মহেশ খালি তাপ বিদ্যুৎকেন্দ্রের শ্রমিক বলে নিশ্চিত করেছে ভবেরচর হাইওয়ে পুলিশ।

ফায়ার সার্ভিস সূত্র জানায়, মুন্সীগঞ্জ গজারিয়া উপজেলার গোমতি ব্রীজের পরেই পাখির মোড়। এই পাখির মোড়ে মাইক্রোবাসের ড্রাইভার ওভার স্পীডে গাড়ি চালাচ্ছিলেন। যাত্রীদের অভিযোগ ড্রাইভারের ঘুমের ভাব ছিলো। এমন অবস্থায় গজারিয়ার পাখির মোড় আসলেই গাড়ি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে উল্টে যায়। ফলে গাড়ি সড়কের বাম পাশ থেকে ডান পাশে কুমিল্লা মুখি হয়ে যায়। ঘটনাস্থলেই তিন জনের মৃত্যু হয়। তিনজনেরই নাম পাওয়া গেছে। তবে মাইক্রো বাসের সকল যাত্রীর বাড়ি গাইবান্ধার সাঘাটায়। নিহতদের মধ্যে বাদশা (২৫), কাফি (৩৪), ইমরান (২৫) পিতা ইনু মিয়া।

এ সময় গুরুতর আহত হয়ে আশংকাজনক রয়েছে আরো ৪ জনসহ আহত হয়েছেন ১১জন। আহতরা হলো আকাশ (১৮), আরিফ (২০), মাজেদুল (৪০), সাইফুল (৩০), সাইদুল (৪০), সাইদুর (৩০), আনোয়ারুল (৩০), বাবু (৩৪), শাহীন (২৬), রেজাউল (৩০), ওমর (৩৫)। এদের মধ্যে কিছু আহত গজারিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে বাকীদের ঢাকা মেডিকেলে পাঠানো হয়েছে।

গজারিয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স জরুরী বিভাগ থেকে জানায়, আহতদের মধ্যে ৬ জনের অবস্থা খারাপ হওয়ায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে এবং বাকীদের প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়েই ছেড়ে দেয়া হয়েছে। ঘটনাস্থলেই ২জন নিহত হয়েছে আহত অবস্থায় ইমরান (২৫) নামের একজন মৃত্যু বরণ করে। নিহতদের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য হাইওয়ে ফাড়ির পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

এ বিষয় গজারিয়া ভবেরচর হাইওয়ে ফাঁড়ির ইনচার্জ নাছির উদ্দিন মজুমদার জানান, দুর্ঘটনায় কবলিত মাইক্রোবাসটি কক্সবাজার মহেশ খালি তাপ বিদ্যুৎকেন্দ্রের শ্রমিক। তারা সকলেই ছুটিতে গাইবান্ধা নিজ বাড়িতে যাচ্ছিল। তিন জন নিহত হয়েছে বাকী ১১ জন আহত হয়েছে। আহত ও নিহত সকলের বাড়ি গাইবান্ধায়।