আসুন পবিত্র ঈদের কেনাকাটায় খরচ কমিয়ে ভ্রাতৃত্ব ও সহমর্মিতা নিয়ে মানুষের পাশে দাঁড়াই -অ্যাডভোকেট মৃণাল কান্তি দাস এমপি

মুন্সীগঞ্জ-৩ আসনের সংসদ সদস্য ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মৃণাল কান্তি দাস এমপি আজ এক বিবৃতিতে বলেছেন- বৈশ্বিক মহামারি করোনা ভাইরাসের কারণে দীর্ঘ ২ মাস ঘরবন্দি থাকায় সমাজের বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ অর্থনৈতিক সংকটের সম্মুখিন। আসন্ন পবিত্র ঈদুল ফিতরের একান্তই প্রয়োজনীয় কেনাকাটা করার সামর্থ্য যাদের নেই সমাজের বিত্তশালী ও সামর্থবানদের তাদের পাশে দাঁড়ানোন উচিত। সৌহার্দ্য, সম্প্রীতি ও ভ্রাতৃত্ববোধের চেতনায় উদ্ভাসিত পবিত্র ঈদের সময়ে আসুন সকলে ঈদের কেনাকাটায় খরচ কমিয়ে ভ্রাতৃত্ব ও সহমির্মতা নিয়ে অসুবিধাগ্রস্ত মানুষের পাশে দাঁড়াই। সকলে সুখ-দুঃখ আনন্দ-বেদনা ভাগাভাগি করে নিই।

অ্যাডভোকেট মৃণাল কান্তি দাস বলেন, অতিমাত্রার সংক্রামক করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে এবং প্রাণঘাতি এই ভাইরাস থেকে নিজেকে মুক্ত রাখতে জনসমাগম এড়িয়ে চলার কোনে বিকল্প নেই। তবুও বিভিন্ন সড়কে ঈদের কেনাকাটা ও ঈদে বাড়ি ফেরা মানুষের অতিরিক্ত চাপ দেখা যাচ্ছে। যা অত্যন্ত বিপদজনক এবং কোনোভাবেই কাম্য নয়। জীবনে বেঁচে থাকলে আমরা আবারও ফিরে পাবো বসন্ত- ফিরে পাবো ঈদ-আনন্দ।

তিনি বলেন, করোনা ভাইরাস সম্পর্কিত স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলার ক্ষেত্রে কোন রকম অবহেলা প্রকাশের সুযোগ নেই। নিজের ও পরিবারের অন্যান্য সদস্যরে জীবনের সুরক্ষায় স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলার এবং শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখার কোনো বিকল্প নেই। সামান্য অবহেলা ডেকে আনতে পারে মারাত্মক মানবিক বিপর্যয়। সকলে স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলুন- সুস্থ’ থাকুন।

তিনি বলেন, করোনা ভাইরাসে সৃংষ্ট সংকটে সমাজের বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ অর্থনৈতিক সংকটের সম্মুখীন। ফলে এবার অনেকেই ঈদের সেমাই-চিনিসহ অন্যান্য প্রয়োজনীয় সামগ্রী ক্রয় করার সামর্থ্য হারিয়ে ফেলেছেন। এই মানবিক সংকটে সমাজের বিত্তশালীদের এগিয়ে আসা উচিত। আসুন, সৗহার্দ্য, সম্প্রীতি ও ভ্রাতৃত্ববোধের চেতনায় উদ্ভাসিত পবিত্র ঈদের সময়ে আসুন সকলে ঈদের কেনাকাটা খরচ কমিয়ে ভ্রাতৃত্ব ও সহমির্মতা নিয়ে অসুবিধাগ্রস্ত মানুষের পাশে দাঁড়াই। সকলে সুখ-দুঃখ আনন্দ-বেদনা ভাগাভাগি করে নিই।