বিনা প্রয়োজনে বের হবেন না জীবন রক্ষায় স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলুন – অ্যাডভোকেট মৃণাল কান্তি দাস এমপি

মুন্সীগঞ্জ-৩ আসনের সংসদ সদস্য ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মৃণাল কান্তি দাস এমপি বলেছেন, নিরব ঘাতক করোনা ভাইরাসের ভয়াবহ আক্রামণ থেকে জীবন রক্ষায় স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলুন। স্বাস্থ্য বিভাগ নির্দেশিত নিয়ম অনুশীলন করুন। বিনা প্রয়োজনে ঘর থেকে বের হবেন না।

গতকাল মুন্সীগঞ্জ সদর উপজেলার পঞ্চসার ইউনিয়নের সরদার পাড়া ও নয়াগাঁও এলাকায় খাদ্য সহায়তা প্রদানকালে এ কথা বলেন তিনি। এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি আল মাহমুদ বাবু, জেলা পরিষদ সদস্য গোলাম রসুল সিরাজী রোমান, জেলা ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক ফয়েজ আহমেদ পাভেল, পঞ্চসার ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য জাহিদ হাসান, আব্দুস সালাম, রুবেল সরদার, শহিদুল ইসলাম ঢালী প্রমুখ।

অ্যাডভোকেট মৃণাল কান্তি দাস বলেন, অতি সংক্রমক ভাইরাস করোনার অবাধ বিচরণ রোধ করতে না পারলে মারাত্মক বিপর্যয় ঘটে যেতে পারে। তাই সকলকে সর্বোচ্চ সতর্কতা ও সচেতনতা নিশ্চিত করতে হবে। একান্তই বাইরে বের হতে হলে অবশ্যই মাস্ক ব্যবহার করতে হবে। চোখ, মুখ ও নাকে হাত দেওয়া থেকে বিরত থাকতে হবে। নিয়মিত সাবান দিয়ে হাত ধুয়ে নিতে হবে। ঘরে ফিরে চশমা, মানিব্যাগসহ ব্যবহার করা জিনিসপত্র সাবান পানি দিয়ে পরিস্কার ভালো করে পরিস্কার করে নিতে হবে। স্বাস্থ্য বিভাগের নির্দেশিত বিধি-নিষেধ সব সময় অনুশীলন করতে হবে।

তিনি বলেন, প্রাণঘাতি মহামারি করোনার কারণে সমগ্র বিশে^ মানুষের দৈনন্দিন জীবন বিপর্যস্ত। স্বেচ্ছা ঘরবন্দি জীবন-যাপনের কারণে আয়-উপার্জন বন্ধ থাকায় সবচেয়ে কষ্টে রয়েছেন নি¤œ আয়ের মানুষ। এদেশের দিনমজুর-রিক্সাচালক, ভ্যানচালক, শ্রমজীবী কৃষক, বাসের চালক-হেলপার, ভিক্ষুক ও হতদরিদ্র মানুষরা সব থেকে বেশি বিপদের সম্মুখিন। বঙ্গবন্ধুকন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার সরকার কর্মহীন খেটে খাওয়া এসব মানুষের মধ্যে খাদ্য সহায়তা ও নগদ প্রণোদনা দিচ্ছে। ঘরে ঘরে খাদ্য সহায়তা পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে। সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচীর আওতা বাড়ানো হয়েছে।

তিনি বলেন, করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় সরকারের পাশাপাশি সকলকেই দায়িত্বশীল ভূমিকা পালন করতে হবে। সচেতনতা, সতর্কতা এবং মানবিকতা ও সহমর্মিতার সাথে সার্বিক পরিস্থিতি মোকাবেলা করতে হবে।