গজারিয়ায় বি.আলম হত্যা মামলায় ৩ আসামীর মালামাল ক্রোক

মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন:
সড়ক পরিবহন শ্রমিক লীগ গজারিয়া উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক বি. আলম হত্যা মামলায় প্রধান আসামী রাসেল সরকার, সাবেক চেয়ারম্যান ও অবৈধ গ্যাস সংযোগের হোতা মজিবুর রহমান ও উজ্জ্বলের যাবতীয় অস্থাবর সম্পত্তি (মালামাল) আদালতের আদেশে ক্রোক করে থানা হেফাজতে নিয়ে আসা হয়েছে। রবিবার (১৫ মার্চ) সকালে গজারিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ ইকবাল হোসেন ও পরিদর্শক (তদন্ত) মামুন -আল- রশিদের উপস্থিতিতে উপজেলার ইমামপুর গ্রামে রাসেল সরকার, উজ্জ্বল ও সাবেক চেয়ারম্যান মুজিবরের বাড়ি থেকে যাবতীয় অস্থাবর সম্পত্তি ক্রোক করে গজারিয়া থানায় নিয়ে আসে পুলিশ।

গজারিয়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মামুন-আল-রশিদ জানান, পুলিশের আবেদনের প্রেক্ষিতে বিজ্ঞ আদালত উপরোক্ত তিন আসামির যাবতীয় অস্থাবর সম্পত্তি (মালামাল) ক্রোকের নির্দেশ দেন। আদালতের নির্দেশনা মেনেই আজ রবিবার তাদের মালামাল পুলিশ হেফাজতে নেয়া হয়েছে বাকি প্রক্রিয়াও আইন মেনে করা হবে।

গজারিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ ইকবাল হোসেন জানান, পলাতক আসামীদের আটক সর্বাধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করা হচ্ছে অচিরেই আসামীদের আটক করা সম্ভব হবে।

উল্লেখ্য, গত ৪ মার্চ ভোরে উপজেলার রসুলপুর গ্রামে সন্ত্রাসী রাসেল বাহিনীর হামলায় সড়ক পরিবহন শ্রমিক লীগ গজারিয়া উপজেলার সাধারণ সম্পাদক বি.আলমসহ নয়জন আহত হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় পরদিন বৃহস্পতিবার মারা যায় বি.আলম। এই ঘটনায় গজারিয়া থানায় তিনটি পৃথক মামলা করা হয়েছে।