গজারিয়ায় এনজিও‘র ঋন গ্রহন করে জনজীবন বিপন্ন

মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন,গজারিয়া(মুন্সীগঞ্জ):
গজারিয়ায় সহজ শর্তে ঋণ পাওয়ায় ঋণগ্রস্ত হয়ে পড়ছে গজারিয়ার অসহায় গরীব পরিবারগুলো। যেখানে তিন বেলার খাবার যোগাতে হিমশিম খাচ্ছে পরিবারের কর্তা ব্যক্তি। সেখানে পরিবারের চাহিদার কারণেই কয়েকটি এনজিও থেকে কিস্তির টাকা তুলে পরিবারের ঘানি টানার চেষ্টা করেন। সহজ শর্তে ঋণ সুবিধা নিতে পারায় যখন তখন কিস্তির টাকা উঠায় অসহায় পরিবারগুলো। কিস্তির টাকা দিতে না পেরে স্ত্রীর উপর চাপ বৃদ্ধি পায়। স্ত্রীর স্বর্ণ, গয়না, বাবা মায়ের কাছ থেকে যৌতুক এনে নি:স্ব হয়ে যায় দুটি পরিবারই। মেয়েকে বিবাহ দিয়ে বাবা মা শান্তিতে ঘুমাতে পারেন না। দুটি পরিবারের বিভিন্ন ঋণের সমস্যায় দিনের পর দিন নির্যাতনের শিকার হন স্ত্রী। পরবর্তীতে বিভিন্ন কারণে অকারণেই স্ত্রী ও বরের পক্ষ থেকে এমনকি উভয় পক্ষের মাধ্যমে বিবাহ বিচ্ছেদের ঘটনা ঘটেই চলছে গজারিয়ায়।
গরীব অসহায় পরিবারের একমাত্র জীবন পরিচালনার হাতিয়ার এনজিও। গজারিয়া উপজেলায় প্রায় শতাধিক এনজিও গ্রামীন গরীব অসহায় মানুষকে সহজ শর্তে ঋন সুবিধা দিয়ে সচ্চল করার চেষ্টা করছে। সহজ শর্তে কিস্তি নিয়ে জীবন সচ্চল করতে গিয়ে কেউ স্ত্রী হারাচ্ছেন, সন্তান হারাচেছন, স্বামী হারাচ্ছেন। অহরহ সংসার ভেঙ্গে চুরমার হয়ে যাচ্ছে গজারিয়ার প্রতিটি গ্রামে। এনজিও টাকা নিয়ে বেশিরভাগ পরিবারই বিপথগ্রস্থ হয়েছে। যেখানে এনজিওর টাকা নিয়ে সচ্ছল হবে সেখানে কিস্তি দিতে দিতে তাদের ভিটে মাটিও বিক্রি করতে হচ্ছে।
গজারিয়ায় এনজির ঋণ পরিশোধ করতে না পেরে দিন দিন আত্মহত্যার ঘটনা বৃদ্ধি পেয়েছে। কিছুদিন পূর্বে এজিওর ঋণের টাকার বোঝার ভার বইতে না পেরে আত্মহত্যা করে শিশু ফয়সাল (১৪)। এমন একটি ঘটনা ঘটে গত বুধবার সকাল ১১টায় গজারিয়া উপজেলার ভবেরচরূ কলেজ রোড় এলাকায়।
গজারিয়া উপজেলা কাজী সমিতির সভাপতি নিকাহ রেজিষ্টার আজহারুল ইসলাম জানান, জানুয়ারি মাসে ৭১টি বিবাহ সম্পন্ন হয়েছে। তার মধ্যে বিবাহ বিচ্ছেদ হয় ১০টি এক পক্ষে থেকে। উভয় পক্ষের সম্মতিতে ৮টি বিবাহ বিচ্ছেদের ঘটনা ঘটে। গজারিয়া উপজেলা আইনশৃঙ্খলা মিটিংয়ে এই তথ্য দেয়ার পর গজারিয়া উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি জসিম উদ্দিন বলেন, বিবাহ বিচ্ছেদ ঘটনাগুলো অত্র অঞ্চলের জন্য মহামারী আকার ধারন করেছে।
বিবাহ বিচ্ছেদের অন্যতম কারণ হিসেবে জানা গেছে বাল্য বিবাহ, এনজিওর ঋণ গ্রহণ করে বিবাহ প্রদান, এনজিও থেকে ঋণ নিয়ে যৌতুক প্রদান, ঋণ নিয়ে গাড়ি ক্রয় করে দেয়া এমন হাজারো কারণে বিবাহ বিচ্ছেদের ঘটনা ঘটেই চলছে গজারিয়া উপজেলায়।