জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে অপ্রতিরোধ্য গতিতে এগিয়ে চলছে বাংলাদেশ                                                                                                              – অ্যাডভোকেট মৃণাল কান্তি দাস এমপি

জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে অপ্রতিরোধ্য গতিতে এগিয়ে চলছে বাংলাদেশ                                                                                                             – অ্যাডভোকেট মৃণাল কান্তি দাস এমপি

মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন,
মুন্সীগঞ্জ-৩ আসনের সংসদ সদস্য ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মৃণাল কান্তি দাস এমপি বলেছেন, জননেত্রী শেখ হাসিনার সুদক্ষ ও কৌশলী নেতৃত্বে অমিত সম্ভাবনার দেশ হিসেবে অপ্রতিরোধ্য গতিতে এগিয়ে চলছে বাংলাদেশ। ২০০৯ থেকে বিগত এক দশকে সমৃদ্ধ বাংলাদেশের বিনির্মাণের অভিযাত্রায় যুক্ত হয়েছে অজ¯্র সাফল্য-স্মারক। জননেত্রী শেখ হাসিনার সমৃদ্ধ বাংলাদেশ বিনির্মাণের সংগ্রামে সর্বাত্মক সহযোগিতা অব্যাহত রাখতে হবে।

গতকাল (৫ ডিসেম্বর) সমৃদ্ধির অযাত্রায় বাংলাদেশ শিরোনামে চলচ্চিত্র প্রদর্শনী ও আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন তিনি। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হাসান সাদীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন- কলিম উল্লাহ কলেজের অধ্যক্ষ মো. মন্তাজিল মর্তুজা। এছাড়া আরও উপস্থিত ছিলেন- জেলা তথ্য অফিসার মো. মনির হোসেন, শবিতা রানী শর্মা, ভবেরচর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি লোকমান হোসেন সরকার, ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার সাঈদ হোসেন লিটু, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান মনিরুল হক মিঠু, জেলা পরিষদ সদস্য সাইদুর রহমান খান, সাবেক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান আসাদ প্রমুখ।

এ্যাডভোকেট মৃণাল কান্তি দাস বলেন, বঙ্গবন্ধুকন্যা, রাষ্ট্রনায়ক জননেত্রী শেখ হাসিনার সুযোগ্য নেতৃত্বে ও সুদক্ষ রাষ্ট্র পরিচালনায় সুশাসন, স্থিতিশীল অর্থনীতি, কৃষি উৎপাদন বৃদ্ধি, উন্নয়নে গতিশীলতা, ডিজিটাল বাংলাদেশ, শিক্ষার প্রসার, স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিতকরণ, কর্মসংস্থান, বিদ্যুৎ উৎপাদন বৃদ্ধি, সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনী, খাদ্য নিরাপত্তা, নারীর ক্ষমতায়নসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে যুগান্তকারী উন্নয়নের ফলে বিশ্বের বুকে বাংলাদেশকে একটি আত্মমর্যাদাশীল জাতি হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে বাংলাদেশ। ইতোমধ্যে বাংলাদেশ স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল রাষ্ট্রে উন্নীত হয়েছে।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের অর্থনৈতিক অগ্রগতি বিশে^ রোল মডেল হিসেবে বিবেচিত হচ্ছে। বর্তমানে অর্থনীতিতে বিশ্বে ৩০তম অবস্থানে রয়েছে বাংলাদেশ। দক্ষিণ এশিয়ায় ভারতের পরই দ্বিতীয় বৃহত্তম অর্থনীতি বাংলাদেশের। মাথাপিছু বৃদ্ধি পেয়ে হয়েছে ১ হাজার ৯০৯ মার্কিন ডলারে উন্নীত হয়েছে। মানুষের গড় আয়ু দাঁড়িয়েছে ৭২.৮ বছরে।

তিনি বলেন, একসময়ের খ্যাদ্য ঘাটতির দেশ হিসেবে পরিচিত বাংলাদেশ খাদ্যে আত্মনির্ভরশীলতা অর্জন করেছে। সবজি উৎপাদনে তৃতীয়, আম উৎপাদনে সপ্তম, পেয়ারা উৎপাদনে অষ্টম, মাছ উৎপাদনে পঞ্চম এবং আলু উৎপাদনে সপ্তম স্থানে রয়েছে। উন্নয়নশীল বিশ্বে বাংলাদেশেই প্রথম সোনালি আঁশ পাটের জিন প্রযুক্তির আবিষ্কার হয়েছে। ফলে উন্মোচিত হয়েছে সম্ভাবনার স্বর্ণদুয়ার। গার্মেন্ট শ্রমিকদের পে-স্কেল পুনর্নির্ধারণ এবং সরকারি কমকর্তা-কর্মচারীদের নতুন বর্ধিত বেতন স্কেল কার্যকর করা হয়েছে। ###
জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে অপ্রতিরোধ্য
গতিতে এগিয়ে চলছে বাংলাদেশ
Ñ অ্যাডভোকেট মৃণাল কান্তি দাস এমপি
মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন,
মুন্সীগঞ্জ-৩ আসনের সংসদ সদস্য ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মৃণাল কান্তি দাস এমপি বলেছেন, জননেত্রী শেখ হাসিনার সুদক্ষ ও কৌশলী নেতৃত্বে অমিত সম্ভাবনার দেশ হিসেবে অপ্রতিরোধ্য গতিতে এগিয়ে চলছে বাংলাদেশ। ২০০৯ থেকে বিগত এক দশকে সমৃদ্ধ বাংলাদেশের বিনির্মাণের অভিযাত্রায় যুক্ত হয়েছে অজ¯্র সাফল্য-স্মারক। জননেত্রী শেখ হাসিনার সমৃদ্ধ বাংলাদেশ বিনির্মাণের সংগ্রামে সর্বাত্মক সহযোগিতা অব্যাহত রাখতে হবে।

গতকাল (৫ ডিসেম্বর) সমৃদ্ধির অযাত্রায় বাংলাদেশ শিরোনামে চলচ্চিত্র প্রদর্শনী ও আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন তিনি। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হাসান সাদীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন- কলিম উল্লাহ কলেজের অধ্যক্ষ মো. মন্তাজিল মর্তুজা। এছাড়া আরও উপস্থিত ছিলেন- জেলা তথ্য অফিসার মো. মনির হোসেন, শবিতা রানী শর্মা, ভবেরচর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি লোকমান হোসেন সরকার, ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার সাঈদ হোসেন লিটু, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান মনিরুল হক মিঠু, জেলা পরিষদ সদস্য সাইদুর রহমান খান, সাবেক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান আসাদ প্রমুখ।

এ্যাডভোকেট মৃণাল কান্তি দাস বলেন, বঙ্গবন্ধুকন্যা, রাষ্ট্রনায়ক জননেত্রী শেখ হাসিনার সুযোগ্য নেতৃত্বে ও সুদক্ষ রাষ্ট্র পরিচালনায় সুশাসন, স্থিতিশীল অর্থনীতি, কৃষি উৎপাদন বৃদ্ধি, উন্নয়নে গতিশীলতা, ডিজিটাল বাংলাদেশ, শিক্ষার প্রসার, স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিতকরণ, কর্মসংস্থান, বিদ্যুৎ উৎপাদন বৃদ্ধি, সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনী, খাদ্য নিরাপত্তা, নারীর ক্ষমতায়নসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে যুগান্তকারী উন্নয়নের ফলে বিশ্বের বুকে বাংলাদেশকে একটি আত্মমর্যাদাশীল জাতি হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে বাংলাদেশ। ইতোমধ্যে বাংলাদেশ স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল রাষ্ট্রে উন্নীত হয়েছে।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের অর্থনৈতিক অগ্রগতি বিশে^ রোল মডেল হিসেবে বিবেচিত হচ্ছে। বর্তমানে অর্থনীতিতে বিশ্বে ৩০তম অবস্থানে রয়েছে বাংলাদেশ। দক্ষিণ এশিয়ায় ভারতের পরই দ্বিতীয় বৃহত্তম অর্থনীতি বাংলাদেশের। মাথাপিছু বৃদ্ধি পেয়ে হয়েছে ১ হাজার ৯০৯ মার্কিন ডলারে উন্নীত হয়েছে। মানুষের গড় আয়ু দাঁড়িয়েছে ৭২.৮ বছরে।

তিনি বলেন, একসময়ের খ্যাদ্য ঘাটতির দেশ হিসেবে পরিচিত বাংলাদেশ খাদ্যে আত্মনির্ভরশীলতা অর্জন করেছে। সবজি উৎপাদনে তৃতীয়, আম উৎপাদনে সপ্তম, পেয়ারা উৎপাদনে অষ্টম, মাছ উৎপাদনে পঞ্চম এবং আলু উৎপাদনে সপ্তম স্থানে রয়েছে। উন্নয়নশীল বিশ্বে বাংলাদেশেই প্রথম সোনালি আঁশ পাটের জিন প্রযুক্তির আবিষ্কার হয়েছে। ফলে উন্মোচিত হয়েছে সম্ভাবনার স্বর্ণদুয়ার। গার্মেন্ট শ্রমিকদের পে-স্কেল পুনর্নির্ধারণ এবং সরকারি কমকর্তা-কর্মচারীদের নতুন বর্ধিত বেতন স্কেল কার্যকর করা হয়েছে। ###
জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে অপ্রতিরোধ্য
গতিতে এগিয়ে চলছে বাংলাদেশ
Ñ অ্যাডভোকেট মৃণাল কান্তি দাস এমপি
মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন,
মুন্সীগঞ্জ-৩ আসনের সংসদ সদস্য ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মৃণাল কান্তি দাস এমপি বলেছেন, জননেত্রী শেখ হাসিনার সুদক্ষ ও কৌশলী নেতৃত্বে অমিত সম্ভাবনার দেশ হিসেবে অপ্রতিরোধ্য গতিতে এগিয়ে চলছে বাংলাদেশ। ২০০৯ থেকে বিগত এক দশকে সমৃদ্ধ বাংলাদেশের বিনির্মাণের অভিযাত্রায় যুক্ত হয়েছে অজ¯্র সাফল্য-স্মারক। জননেত্রী শেখ হাসিনার সমৃদ্ধ বাংলাদেশ বিনির্মাণের সংগ্রামে সর্বাত্মক সহযোগিতা অব্যাহত রাখতে হবে।

গতকাল (৫ ডিসেম্বর) সমৃদ্ধির অযাত্রায় বাংলাদেশ শিরোনামে চলচ্চিত্র প্রদর্শনী ও আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন তিনি। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হাসান সাদীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন- কলিম উল্লাহ কলেজের অধ্যক্ষ মো. মন্তাজিল মর্তুজা। এছাড়া আরও উপস্থিত ছিলেন- জেলা তথ্য অফিসার মো. মনির হোসেন, শবিতা রানী শর্মা, ভবেরচর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি লোকমান হোসেন সরকার, ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার সাঈদ হোসেন লিটু, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান মনিরুল হক মিঠু, জেলা পরিষদ সদস্য সাইদুর রহমান খান, সাবেক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান আসাদ প্রমুখ।

এ্যাডভোকেট মৃণাল কান্তি দাস বলেন, বঙ্গবন্ধুকন্যা, রাষ্ট্রনায়ক জননেত্রী শেখ হাসিনার সুযোগ্য নেতৃত্বে ও সুদক্ষ রাষ্ট্র পরিচালনায় সুশাসন, স্থিতিশীল অর্থনীতি, কৃষি উৎপাদন বৃদ্ধি, উন্নয়নে গতিশীলতা, ডিজিটাল বাংলাদেশ, শিক্ষার প্রসার, স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিতকরণ, কর্মসংস্থান, বিদ্যুৎ উৎপাদন বৃদ্ধি, সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনী, খাদ্য নিরাপত্তা, নারীর ক্ষমতায়নসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে যুগান্তকারী উন্নয়নের ফলে বিশ্বের বুকে বাংলাদেশকে একটি আত্মমর্যাদাশীল জাতি হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে বাংলাদেশ। ইতোমধ্যে বাংলাদেশ স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল রাষ্ট্রে উন্নীত হয়েছে।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের অর্থনৈতিক অগ্রগতি বিশে^ রোল মডেল হিসেবে বিবেচিত হচ্ছে। বর্তমানে অর্থনীতিতে বিশ্বে ৩০তম অবস্থানে রয়েছে বাংলাদেশ। দক্ষিণ এশিয়ায় ভারতের পরই দ্বিতীয় বৃহত্তম অর্থনীতি বাংলাদেশের। মাথাপিছু বৃদ্ধি পেয়ে হয়েছে ১ হাজার ৯০৯ মার্কিন ডলারে উন্নীত হয়েছে। মানুষের গড় আয়ু দাঁড়িয়েছে ৭২.৮ বছরে।

তিনি বলেন, একসময়ের খ্যাদ্য ঘাটতির দেশ হিসেবে পরিচিত বাংলাদেশ খাদ্যে আত্মনির্ভরশীলতা অর্জন করেছে। সবজি উৎপাদনে তৃতীয়, আম উৎপাদনে সপ্তম, পেয়ারা উৎপাদনে অষ্টম, মাছ উৎপাদনে পঞ্চম এবং আলু উৎপাদনে সপ্তম স্থানে রয়েছে। উন্নয়নশীল বিশ্বে বাংলাদেশেই প্রথম সোনালি আঁশ পাটের জিন প্রযুক্তির আবিষ্কার হয়েছে। ফলে উন্মোচিত হয়েছে সম্ভাবনার স্বর্ণদুয়ার। গার্মেন্ট শ্রমিকদের পে-স্কেল পুনর্নির্ধারণ এবং সরকারি কমকর্তা-কর্মচারীদের নতুন বর্ধিত বেতন স্কেল কার্যকর করা হয়েছে। ###