গজারিয়া থানার ওসির মহতি উদ্যোগে ফিরে পেল বৃদ্ধার মালছামানা

গজারিয়া থানার ওসির মহতি উদ্যোগে ফিরে পেল বৃদ্ধার মালছামানা

মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন:
৮০ বছর বয়সের এক বৃদ্ধা এক রাত মানবেতর জীবন যাপন করে ফিলে পেল তার ঘরের আসবাবপত্র ও মালামাল। গজারিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ হারুন অর রশিদের উদ্যোগে সে তার ঘরের সকল আসবাবপত্র ও মালামাল ফিরে পায়। বুধবার সকাল ১০টায় পুলিশ পাঠিয়ে তিনি আইনী সহায়তা প্রদান করেন।

বৃদ্ধা রাজ মিয়া (৮০) জানান তার স্ত্রী জোহরা স্ট্রোক করে অসুস্থ হয়ে ঢাকায় চিকিৎসাধীন। তিনি ঢাকায় তার স্ত্রীকে দেখে রাতে চর বাউশিয়া সজিব পাম্পের সামনে বুধবার সন্ধ্যার একটু পরেই নেমে টেকপাড়া নিজ বাড়িতে পৌছান। ঘরের সামনে গিয়ে তিনি দেখেন ঘরে নতুন তালা লাগানো। তার ঘর ভাংচুর করে চুন্নু মিয়া ঘরের আসবাবপত্র নড়াচড়া করে তালা মেরে দেয়। ফলে বাড়ির সামনেই কনকনে শীত উপেক্ষা করে সারারাত কাটিয়ে দেন তিনি। ফজরের আযান দিলে মসজিদে ফজর নামাজ আদায় করে বাউশিয়া ইউপি চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান প্রধানের কাছে যান। পরবর্তীতে গজারিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মো: হারুন অর রশিদের কাছে পাঠান। ওসি সাহেব ২জন পুলিশ দিয়ে আমার বাড়িতে পাঠায় আমার সাথে। তাদের সহায়তায় ঘর খুলে দেয়া হয় এবং ৪ দিনের সময় দেয়া হয় ঘর ও ঘরের মালসামানা সরিয়ে ফেলার জন্য।

বৃদ্ধা রাজ মিয়ার দুই ছেলে এক মেয়ে। মেয়ে বিয়ে দিয়ে দিয়েছেন। দুই ছেলেই গাড়ি চালিয়ে সংসার চালান। ছোট ছেলে আলমগীর হোসেন আমার দেখাশুনা করেন। বড় ছেলের প্রয়োজনে আমার বাড়ির জায়গা জমি বিক্রি করে দিয়েছে। পুলিশের সহায়তায় মালসামানা ফেরত পেয়ে আমি খুশি। ###